Saturday August 24, 2019
জনপ্রশাসন
12 July 2019, Friday
পূর্ণমন্ত্রী হলেন ইমরান,নতুন প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা
ফাস্টনিউজ,ঢাকা:ইমরান আহমদকে মন্ত্রী ও ফজিলাতুন নেসাকে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে সরকার।

শুক্রবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এই নিয়োগ দিয়ে আদেশ জারি করা হয়েছে। আগামীকাল শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বঙ্গভবনে তারা শপথ নেবেন বলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে।

ইমরান আহমদ বর্তমানে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম স্বাক্ষরিক এক আদেশে বলা হয়েছে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশেরে সংবিধানের ৫৬ অনুচ্ছেদের (২) দফা অনুযায়ী মহামান্য রাষ্ট্রপতি অদ্য ২৭ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ/১১ জুলাই ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ বৃহস্পতিবার ইমরান আহমদ মন্ত্রী ও বেগম ফজিলাতুন নেসাকে প্রতিমন্ত্রী পদে নিয়োগ দান করেছেন। শপথ গ্রহণের তারিখ থেকে এ নিয়োগ কার্যকর হবে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর সরকার গঠনের ছয় মাসের মাথায় সম্প্রসারিত হচ্ছে মন্ত্রিসভা। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর গত ৭ জানুয়ারি টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। ৪৬ সদস্যের ওই মন্ত্রিসভায় ২৪ মন্ত্রী, ১৯ প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন উপমন্ত্রী রয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে ছয় মন্ত্রণালয় রাখা হয়।

পরে গত ১৯ মে মন্ত্রিসভা পুনর্বিন্যাস করা হয়। তখন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়। এছাড়া ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারকে একই মন্ত্রণালয়ের ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মন্ত্রী করা হয়। এ মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের দায়িত্ব দেওয়া হয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলককে।

একই সঙ্গে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধীন স্থানীয় সরকার বিভাগের মন্ত্রী করা হয় তাজুল ইসলামকে। তাকে আগে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও স্বপন ভট্টচার্যকে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। একই মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন স্বপন ভট্টাচার্য।

১২.০৭.২০১৯/ফাস্টনিউজ/এমআর/১৬.৩৫
জনপ্রশাসন :: আরও খবর